বৃহস্পতিবার দুপুর ১২:২৪ ১৬ই জুলাই, ২০২০ ইং ২৫শে জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী বর্ষাকাল
অর্থ-বানিজ্য

বিদেশ ভ্রমণে আন্তর্জাতিক ডেবিট কার্ডের সুযোগ দিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

আপডেটঃ

ব্যক্তিগত ভ্রমণ কোটার বিপরীতে গ্রাহকদের ব্যাংক হিসাবের বিপরীতে আন্তর্জাতিক ডেবিট কার্ড ইস্যু করার সুযোগ দিল বাংলাদেশ ব্যাংক। এই কার্ডেও আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ডের মতোই সব ধরনের সুবিধা পাওয়া যাবে। ভ্রমণ কোটার বৈদেশিক মুদ্রা নেওয়ার বার্ষিক লিমিট এই কার্ডের ব্যবহার করা যাবে।
মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত সার্কুলার করা হয়েছে।
বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা জানান, ডেবিট কার্ড ইসুর সুযোগ মেলায় ব্যাংকগুলো বেশি সুবিধা ভোগ করবে। কারণ ডেবিট কার্ডের বিপরীতে কোন ক্রেডিট লিমিট দিতে হবে না, যে ক্রেডিট কার্ডের বিপরীতে দিতে হয়।
জানা গেছে, প্রযুক্তিগত দিক দিয়ে বিদেশী খাতের এইচএসবিসি হাতেগোনা কয়েকটি ব্যাংক এ ধরনের কার্ড ইস্যুর সক্ষমতা রয়েছে। তবে এখন সুযোগ দেওয়ায় অন্যান্য ব্যঙ্গ এ ধরনের কার্ড ইস্যুর প্রযুক্তিগত সক্ষমতা অর্জনে সচেষ্ট হবে বলে আশা করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।
এ বিষয়ে ব্যাংকের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা বলেন,ট্রাভেল প্রথার আওতায় কার্যত ইন্টারন্যাশনাল ডেবিট কার্ড বাজারে নেই।বর্তমানে কিছু কিছু ব্যাংক এর কাজে সফলতা অর্জন করেছে। এর প্রেক্ষিতে এই সূচক চালুর সুযোগ দিল বাংলাদেশ ব্যাংক।
সার্কুলারে বলা হয়েছে, ভ্রমন কোটার আওতায় গ্রাহকের স্থানীয় মুদ্রায় খোলা ব্যাংক হিসাবের বিপরীতে আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ড ইস্যু করতে পারবে ব্যাংকগুলো। বার্ষিক ভ্রমণ কোটার ডলার পাসপোর্ট এন্ডোসম্যান্ট হতে হবে। পাসপোর্টে এন্ডোসের অতিরিক্ত ডলার ব্যবহার করতে পারবে না গ্রাহক। গ্রাহকের স্থানীয় মুদ্রায় যে হিসাবের সঙ্গে আন্তর্জাতিক ডেবিট কার্ড সংযুক্ত থাকবে, সেই হিসাবে পর্যাপ্ত অর্থ থাকতে হবে, যাতে কার্ড দিয়ে খরচ  করা অর্থ সমন্বয় করা সম্ভব হয়।
উল্লেখ্য, বর্তমানে বিশ্বের যেকোন দেশে ব্যক্তিগত ভ্রমণের জন্য বছরে মাথাপিছু সর্বোচ্চ ১২ হাজার মার্কিন ডলার বা সমপরিমাণ খরচ করতে পারেন বাংলাদেশিরা। আগে সার্কভুক্ত দেশ ও মায়ানমারের জন্য এ সীমা ছিল ৫ হাজার ডলার। এছাড়া অন্যান্য দেশের জন্য এ সীমা ছিল ৭ হাজার ডলার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close