বৃহস্পতিবার দুপুর ১২:২৫ ১৬ই জুলাই, ২০২০ ইং ২৫শে জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী বর্ষাকাল
অর্থ-বানিজ্য

৭২৫০ অভিবাসী ব্র্যাকের নগদ ৩ কোটি টাকা সহায়তা পাচ্ছেন

আপডেটঃ

করোনার কারণে চাকরি হারিয়ে বা অসহায় হয়ে দেশে  ফরত আসা ৭ হাজার ২৫০ জন অভিবাসী কর্মীকে জরুরী সহায়তা হিসেবে নগদ তিন কোটি টাকা অর্থ সহায়তা দিচ্ছে ব্র্যাক। মূলত, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন, কুয়েত, কাতার, মালয়েশিয়া, লিবিয়া, ইউরোপসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে যারা ফিরেছেন তারা এই সহায়তা পাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে ভার্চুয়াল একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন।
মূলত ব্র্যাকের নিজস্ব অর্থায়ন, রয়েল ড্যানিশ দূতাবাস, সুইস এজেন্সী ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড কোঅপারেশন (এসডিসি), প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান  মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অর্থায়নে আইওএম-ব্র্যাকের যৌথভাবে পরিচালিত প্রত্যাশা প্রকল্প, চিলড্রেন ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড ফাউন্ডেশন (সিফ) এবং ব্র্যাক ইউকে-এর সঙ্গে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে নগদ এই অর্থ প্রদান করা হচ্ছে।
দেশের বিভিন্ন স্থানে  জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে এবং স্থানীয়ভাবে ব্র্যাকের মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের দ্বারা বিদেশ ফেরত কর্মীদের প্রকৃত অবস্থা যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে তালিকা প্র¯‘ত করে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বিকাশের মাধ্যমে নগদ এই অর্থ পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ব্র্যাক জানিয়েছে, ইতোমধ্যে এক হাজার ৫৪৫ জন বিদেশফেরত কর্মীর কাছে ৬১ লাখ ৮০ হাজার টাকা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বাকী পাঁচ হাজার ৭০৫ জনের যাচাইবাছাই চলছে। তারাও দ্রততম সময়ের মধ্যে জরুরী এই অর্থ-সহায়তা পাবেন।
ব্র্যাক জানিয়েছে, শুধু জরুরী সহায়তা নয়, ব্র্যাকের নিজস্ব অর্থায়ন ও দাতাদের সহায়তায় বিদেশ ফেরতের মনোাসামাজিক সেবা, দক্ষতা তৈরি, অর্থনৈতিক পুনরেকত্রীকরণের জন্য আগামী তিন বছরে প্রায় ১০০ কোটি টাকা পরিকিল্পিতভাবে খরচের পরিকল্পনা রয়েছে। কোভিড-১৯ এর কারণে ক্ষতিগ্রস্ত বিদেশ ফেরতদের জরুরী সহায়তা কর্মসূচির উদ্বোধন করে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন বলেন, প্রবাসীদের কল্যাণ নিশ্চিতে সরকার কাজ করছে। কিš‘ এই মুহূর্তে যেটা দরকার, সেটা হচ্ছে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা। এই মুহূর্তে দরকার দৃশ্যমান কোনো সহায়তা যা সরাসরি কাজে লাগতে পারে। সেক্ষেত্রে ব্র্যাক এই যে, তিন কোটি টাকা নগদ অর্থ সহায়তা নিয়ে এগিয়ে এসেছে সেটি অত্যন্ত সময়োপযোগী। অনুষ্ঠনটি সঞ্চালনা ও মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন ব্র্যাকের মাইগ্রেশন কর্মসূচি প্রধান শরিফুল হাসান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্র্যাকের সিনিয়র ডিরেক্টর কে এ এম মোর্শেদ এবং অনুষ্ঠানে কোপেনহেগেন থেকে বিশেষ অতিথি হিসেবে যুক্ত হয়েছিলেন ঢাকার ড্যানিশ দূতাবসের ডেপুটি চিফ অব মিশন রেফিকা হেইতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close