সোমবার রাত ৮:০৬ ১৯শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ২রা রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি হেমন্তকাল
কানাডা

ফেসবুক থেকে এবার সরে গেল কানাডার বড় বড় ব্যাংক।

আপডেটঃ জুলাই ৬, ২০২০

ফেসবুক থেকে বড় বড় কোম্পানির বিজ্ঞাপন সরিয়ে নেওয়ার তালিকা কেবল দীর্ঘই হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার কানাডার বেশ কয়েকটি বড় ব্যাংক ফেসবুকে বিজ্ঞাপন বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
আর এর মাধ্যমে ফেসবুকে বর্ণবাদ ও ঘৃণ্য বক্তব্য ছড়ানোর প্রতিবাদে এ মাধ্যম বর্জনের জন্য ‘হ্যাশট্যাগ স্টপ হেট ফর প্রফিট’ আন্দোলন আরও জোরদার হলো।
কানাডার ব্যাংকগুলোর মধ্যে আছে, রয়্যাল ব্যাংক অফ কানাডা, টরোন্টো-ডমিনিয়ন ব্যাংক, ব্যাংক অফ নোভা স্কশিয়া, ব্যাংক অফ মন্ট্রিয়েল, ন্যাশনাল ব্যাংক অফ কানাডা এবং কানাডিয়ান ইমপিরিয়াল ব্যাংক অফ কমার্স জুলাই মাসে ফেসবুক প্ল্যাটফর্মে বিজ্ঞাপন বন্ধ রাখার কথা জানিয়েছে।
এর আগে গত বৃহস্পতিবার কানাডার বৃহত্তম ক্রেডিট ইউনিয়ন ফেডারেশন ‘ডেজারডেন গ্রুপ’ নিজেদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, চলতি মাসে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে বিজ্ঞাপন বন্ধ রাখবে প্রতিষ্ঠানগুলো। শুধুমাত্র গ্রাহক ও সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগের ক্ষেত্রে এর ব্যক্তিক্রম হতে পারে।
ইতিমধ্যে ইউনিলিভার, কোকো-কোলা, হুন্ডাসহ বিশ্বের অন্তত ৪০০টি ব্র্যান্ড ‘হ্যাশট্যাগ স্টপ হেট ফর প্রফিট’ নামের এই আন্দোলনে যোগ দিয়েছে।
সম্প্রতি বর্ণবাদী সংগঠনকে প্রশ্রয় দেওয়াসহ বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে চুপ থাকার জেরে ভেতরে-বাইরে প্রচুর সমালোচিত হয়েছে ফেসবুক। পরিস্থিতি সামলাতে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ ঘৃণ্য বক্তব্য ঠেকানোর কৌশল, পোস্টে লেবেল লাগানোসহ নানা পরিবর্তন আনার কথা বলেছেন। নাগরিক অধিকার নিরীক্ষণের জন্য ফেসবুক নিজেকে উন্মুক্ত করেছে। সংস্থাটির এক মুখপাত্র জানান ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রাম থেকে ২৫০টির মতো বর্ণ আধিপত্যবাদী সংস্থা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ওই মুখপাত্র আরও জানান, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় বিনিয়োগ করছে ফেসবুক। এর অর্থ এটি প্রায় ৯০ শতাংশ ঘৃণ্য বক্তৃতা খুঁজে পাবে এবং ব্যবহারকারীরা এটির বিরুদ্ধে রিপোর্ট করার আগেই পদক্ষেপ নিতে পারবে। তারপরও ফেসবুকের ওপর আস্থা রাখতে পারছেন না অনেকেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!
Close
Close