শনিবার দুপুর ১:৩৯ ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ২০শে রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি হেমন্তকাল
বাংলাদেশ

জামিন আবেদন নামঞ্জুর, কারাগারেই থাকতে হচ্ছে পাপুলকে।

আপডেটঃ জুলাই ৩১, ২০২০

কুয়েতে মানবপাচার, মানি লন্ডারিং ও ভিসা জালিয়াতির অভিযোগে আটক বাংলাদেশি সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের জামিন আবেদন আবারও নামঞ্জুর করে কারাবাসের মেয়াদ আরও দু’সপ্তাহ বাড়িয়েছেন দেশটির আদালত। ৯ই আগস্ট পর্যন্ত তাকে জেলহাজতে রাখার নতুন আদেশ জারি হয়েছে। পাপুলের বিষয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে সিআইডির অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরুর পর থেকে ধারাবাহিকভাবে রিপোর্ট ও ফলোআপ দেয়া কুয়েতের প্রতিষ্ঠিত আরবি দৈনিক আল-কাবাস তার সর্বশেষ রিপোর্টে জানিয়েছে, ২৭ শে জুলাই (সোমবার) আদালতে ওঠেছিল বহুল আলোচিত পাপুল কেস। তার আইনজীবিরা বরাবরের মতো জামিন চেয়েছেন। কিন্তু বিজ্ঞ বিচারক তা নামঞ্জুর করে বাংলাদেশি এমপি পাপুল এবং তার অপকর্মের  সহযোগীদের ৯ই আগস্ট পর্যন্ত ডিটেনশন অব্যাহত রাখার আদেশ দেন। পাপুলের সহযোগীরা হলেন- মেজর জেনারেল মাজেন আল জাররাহ (স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অপসারিত কর্মকর্তা) এবং হাসান আবদুল্লাহ আল কাদের ও নাওয়াফ আলী আল সালাহি। উল্লেখ্য, জুলাই’র মাঝামাঝিতেও পাপুলের জামিন চাওয়া হয়েছিল। সে সময় ওই সংসদ সদস্যের নিয়োগ করা আইনজীবী প্যানেলের আরজি ছিল যে কোনো শর্তে জামিন আদায়ের।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!
Close
Close