বুধবার রাত ১০:১৯ ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং ৬ই সফর, ১৪৪২ হিজরী শরৎকাল
আন্তর্জাতিক

বাইডেন জিতলে চীনের লাভ’।

আপডেটঃ

আমেরিকার জাতীয় নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসতে শুরু করেছে, ততই নানা পক্ষ নড়েচড়ে উঠছে। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জনমত এখন নিম্নগামী। তাঁর পক্ষের রক্ষণশীল লোকজন এবার সম্ভাব্য ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনকে আক্রমণ করতে শুরু করেছেন। জো বাইডেনকে নির্বাচিত করা মানে চীনের লাভ, আমেরিকার নয়—এমন কথা প্রচার করে মৌসুমি আক্রমণ শুরু হয়ে গেছে। মাঠে নেমে গেছেন রক্ষণশীল উপস্থাপক লোরা ইংগ্রাহাম। ফক্স নিউজের এ উপস্থাপক বলেছেন, বাইডেন নির্বাচিত হলে আমেরিকা লাস্ট আর চীন ফার্স্ট হয়ে যাবে। এবারের আমেরিকার নির্বাচনে চীনকে শত্রু হিসেবে চিহ্নিত করার প্রয়াস আগে থেকেই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। করোনাভাইরাসে ১ লাখ ৬০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যুতে নাজুক হওয়া আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আগে থেকেই এ ভাইরাসকে ‘চায়না ভাইরাস’ বলে আসছেন। ফক্স নিউজের উপস্থাপক লোরা ইংগ্রাহাম ৭ আগস্ট বলেছেন, আসছে নির্বাচনে জো বাইডেনের বিজয় চীনের বিশাল বিজয় হিসেবে বিবেচিত হবে। জো বাইডেনের বিজয় মানে আমেরিকার কর্মজীবীদের বিশাল ক্ষতি বলে তিনি মনে করেন। লোরা ইংগ্রাহাম বলেন, পছন্দটি একদম পরিষ্কার। একদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্প, যিনি আমেরিকার আসল রাজনৈতিক শক্তি, চীনকে আমেরিকার বাজারে চলার ধরন পাল্টানো এবং বাজার থেকে তাড়ানোর প্রধান শক্তি ট্রাম্প, অন্যদিকে বাইডেনের শিবির থেকে চীনকে বিতাড়নের সব উদ্যোগ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে গেছে বলে তিনি মনে করেন। লোরা ইংগ্রাহাম বলেন, ওবামা আমলের ব্যর্থ বাণিজ্যনীতিতে ফিরে যাওয়ার সব প্রস্তুতি রয়েছে বাইডেন শিবিরে। ডেমোক্র্যাটরা বলবেন, চীনের বিরুদ্ধে তাঁরা বিশ্ব জনমত গড়ে তুলবেন। অথচ তাঁদের রেকর্ডে এমন কিছু অর্জন করার কোনো উদাহরণ নেই। এর মধ্যে জো বাইডেন কৃষ্ণাঙ্গ ও হিস্পানিক সাংবাদিকদের এক সভায় সম্প্রতি বলেছেন, নির্বাচিত হলে চীনের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের করা বাণিজ্যনীতিতে তিনি পরিবর্তন আনবেন। রক্ষণশীলদের মধ্যে জনপ্রিয় রাজনৈতিক উপস্থাপক লোরা বলেন, ‘যদি আগের অবস্থায় ফিরে যেতে চান, যেখানে চীন ফার্স্ট। তাহলে বাইডেনই আপনাদের লোক। যদি মনে করেন, চায়না আরও শক্তিশালী হোক, আরও সম্পদশালী হোক, তাহলেও বাইডেন আপনাদের পছন্দের লোক। যদি মনে করেন, আমেরিকায় অধিক পণ্য উৎপাদিত হবে, তাহলে ট্রাম্প আপনাদের লোক। যদি মনে করেন আমেরিকায় কর্মসংস্থান বাড়বে, কমিউনিস্ট চায়নাকে বিশ্ব নিয়ন্ত্রণ করার জন্য দেওয়া হবে না, তাহলে ডোনাল্ড ট্রাম্পই আমেরিকার জন্য একমাত্র জরুরি লোক।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!
Close
Close